প্রকৃতির যৌবনকাল ভাদ্র মাস

মেহেদী হাসান স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট ।
  • আপডেট টাইম : আগস্ট ১৮ ২০২০, ১৮:০২
  • 915 বার পঠিত
প্রকৃতির যৌবনকাল ভাদ্র মাস

বাংলা মাস ভাদ্র । বাংলা সনের পঞ্চম মাস এটি বলা হয়ে থাকে, ভদ্রা নক্ষএের নাম থেকে এই মাসের নামকরণ করা হয়েছে। এই মাসে প্রকৃতি এক অনন্য রুপ ধারণ করে। শ্রাবণ শেষে যেন চুপিসারেই আসে ভাদ্র। চলে রৌদ্র -মেঘের খেলা, সকালের মেঘ – বৃষ্টি, দুপুরে কড়া রোদের ঝিলিক, আবার সনধ্যায় মেঘের আনাগোনা। কারো কারো ভাবনা এমন হতে পারে যে, বর্ষাকাল এখনো শেষ হয়নি এই মাসের আগমনে বাংলার প্রকৃতি থাকে নির্মল, স্নিগ্ধ। সাদা মেঘের ভেলায় চড়ে নদীতীরে ফুটে ওঠে আরেক শুভ্রতা। সৌন্দর্য প্রকাশে কাশগুচ্ছ আর শিউলিতেই থেমে থাকে না শরৎ। পানিতে ফোঁটা শাপলা- পদন, ডাঙায় ফোটা শিউলি, জুঁই আর নীলাকাশ মিলে প্রকৃতি সাজে এক অনন্য রুপে। এই মাসেই তাল পাকে, আর এই তাল থেকেই তৈরি হয় অসাধারণ লোভাতুর পিঠা। পাকা তালের মৌ মৌ গন্ধে ভরে যায় চারদিক। তবে বিশ্বব্যাপী জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে ভাদ্র মাসেরই পূর্বে বাজারে পাকা তাল দেখা যায়। তালের রস থেকেই গ্রাম বাংলায় তৈরি হয় স্বাদের সব পিঠাপুলি। এ মাসটিকে ঘিরে আদিবাসীরাও বিভিন্ন উৎসব পালন করে থাকে । এ মাসে তাদের সবচেয়ে বড় উৎসব হল ‘ কারাম’ উৎসব।
” ওরাও ” সম্প্রদায় এ উৎসব পালন করে থাকে। এছাড়া ও সাঁওতাল, মালো, মুন্ডাসব বিভিন্ন ক্ষুদ্রনৃগোষঠির ও এই সব পালন করে থাকে। উৎসবের প্রথম দিন নর- নারীরা উপোস করে থাকে। এসময় তারা নাচ- গান সহ বিভিন্ন পূজার আয়োজন করে থাকে।

বলা যায়, প্রকৃতি এক নব রূপ ধারণ করে থাকে এ মাসে। ঐতিহ্য, গল্পগাঁথা, লোককথা, উৎসব, প্রকৃতির সাজ সব মিলে এ মাসটি অপরূপ বৈচিত্র্য ধারণ করে। সারা দেশে যেন হিল্লোল পড়ে যায়। এ মাসটিকে ঘিরেই কত কবি গান, কবিতা রচনা করেছেন। সবশেষে বলা যায়, ভাদ্র মাস গ্রাম বাংলার এক ঐতিহ্য অহংকার।

লেখিকা: আফসানা আক্তার

Please follow and like us:
এই ক্যাটাগরীর আরো খবর

বিজ্ঞাপন